“আমাদের আমলে এমনটা ভাবতেও পারতাম না”, বিরাটের পিতৃত্বকালীন ছুটি নিয়ে মুখ খুললেন কপিল দেব

বাবা হতে চলেছেন ক্রিকেট অধিনায়ক বিরাট কোহলি। সেই কারণেই বাবা হওয়ার দায়িত্বকেই গুরুত্বের দিক থেকে অগ্রাধিকার দিয়েছেন তিনি। ঠিক সেই কারণেই তাকে সমালোচনার মুখে পড়তে হয়েছে।

এবার বিরাট কোহলির পিতৃত্বকালীন ছুটি নিয়ে মুখ খুললেন ভারতীয় দলের প্রাক্তন অধিনায়ক কপিল দেব। জানিয়ে দিলেন,তাঁদের সময় এমনটা ভাবার অবকাশ ছিল না।

আগামী বছর জানুয়ারি মাসে বাবা হতে চলেছেন বিরাট কোহলি। সেই কারণেই অস্ট্রেলিয়া সফরের মধ্যেই দেশে ফিরছেন তিনি। ইতিপূর্বে বিসিসিআই এর কাছে অনেক আগেই আবেদন জানিয়ে রেখেছিলেন বিরাট।

সেইমতো অনুমতি পেয়ে গেছেন। ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে যে,দলের বিরুদ্ধে প্রথম টেস্ট খেলেই ফিরে আসবেন অধিনায়ক বিরাট কোহলি।

নেটিজেন মহলের এক বড় অংশ বিরাট কোহলির সমালোচনায় মুখর হয়েছেন। অনেকে আবার ধোনির কন্যা জিভার জন্মের প্রসঙ্গ তুলে ধরেছেন।বলেছেন,  জন্মের সময় কিন্তু ধোনি দেশের দায়িত্ব ছেড়ে দিয়ে বাড়ি ফিরে যাননি।

এবার বিরাট কোহলির পিতৃত্বকালীন ছুটির প্রসঙ্গে মুখ খুললেন প্রাক্তন ভারতীয় ক্রিকেট অধিনায়ক কপিল দেব। বিরাটের বাবা হওয়ার বিষয়টিকে অগ্রিম শুভেচ্ছা জানিয়েছেন তিনি। কপিল দেব বলেন,”আমাদের কালে এমনটা সম্ভব হত বলে মনে হয় না।

একবার নিয়ে আবার ফেরত আসতাম, নিশ্চিতভাবে এমন সুযোগ পাওয়া যেত না। সুনীল গাভাসকর যেমন কয়েক মাস ছেলের মুখই দেখতে পায়নি। তবে তখন পরিস্থিতি অন্যরকম ছিল। সময় বদলে যায়।

কোহলির উদাহরণ দিয়েই বলি। বাবা হারানোর পরের দিনই তো মাঠে নেমেছিল। এবার ও সন্তান আসার দায়িত্ব পালনে ছুটি নিচ্ছে। সম্ভব হলে নিতেই পারে।”

একইসঙ্গে কপিল দেবের বক্তব্য,”এখন ইচ্ছে হলে কোনও খেলোয়াড় নিজে বিমান কিনেও যাতায়াত করতে পারে। ভাবলে ভালই লাগে যে ক্রীড়াবিদরা এখন এতটা উচ্চতায় পৌঁছে গিয়েছে।” এক কথায় বলতে গেলে কপিল দেব বিরাটকে বুঝিয়ে দেন, তাঁর এই ছোট নেওয়াতে তাঁর ভালোবাসা বিন্দুমাত্র কমে যায়নি।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য,ভিভিএস লক্ষ্মণ ২০০৬-০৭-এ দলের সঙ্গে দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে ছিলেন। নিজের প্রথম সন্তানের জন্মের সময় তার মুখ দেখতে পাননি তিনি।

যদিও বিরাট কোহলির এই সময় ছুটি নেওয়াটাকে সমর্থন জানিয়েছেন কপিল দেব। সুনীল গাভাস্কার বলেছেন,অস্ট্রেলিয়ায় কোহলির না থাকাটা একদিক থেকে টিম ইন্ডিয়ার জন্য ভাল। বিরাট কোহলির অনুপস্থিতিতে দলগতভাবে খেলার চেষ্টা করবে সকলে।