টাকা, পেশিশক্তি আর চাতুরি দিয়ে ৩১ বছরের ছেলেকে আটকাতে পারলেন না মোদি’: তেজস্বী

বিহারের একক বৃহত্তম দল বর্তমানে আরজেডি। সরকার গড়তে পারেনি ঠিকই তবে রাজ্যবাসী হৃদয়ে রয়েছে আরজেডি। এমনটাই মনে করছেন তেজস্বী যাদব। বিহারের মসনদের হাড্ডাহাড্ডি লড়াই শেষে জয়লাভ করেছে বিজেপি।

কিন্তু বৃহস্পতিবার সাংবাদিক বৈঠকে তেজস্বী যাদব বলেন,”নীতীশ কুমার ও নরেন্দ্র মোদী অর্থ, পেশিশক্তি আর চাতুরির জোরে জয় পেয়েছেন। তবু তাঁরা ৩১ বছরের একটি ছেলেকে রুখতে পারেননি। আরজেডি একক বৃহত্তম দল হিসাবে উঠে এসেছে”।

বৃহস্পতিবারের সাংবাদিক বৈঠকে তেজস্বী যাদব নীতীশ কুমার কে আ’ক্রমণ করে বলেন,”দেখুন, নীতীশ কুমারের মুখ থেকে কেমন ঔজ্জ্বল্য উধাও হয়ে গিয়েছে। তাঁর দল তৃতীয় স্থানে চলে এসেছে। এই ফল পরিবর্তনেরই বার্তা দিচ্ছে। নীতীশ কুমার মুখ্যমন্ত্রীর আসনে বসছেন ঠিকই, কিন্তু মানুষের হৃদয়ে আমরাই আছি।”

এদিন তেজস্বী যাদব নিজের বক্তব্যের মাধ্যমে নীতীশ কুমারের আরজেডি ত্যাগ করার কথা উঠে আসে। ঠাট্টা করে তেজস্বী যাদব বলেন,ওই মুখ্যমন্ত্রীর আসনের জন্য নীতীশ সবকিছুই করতে পারেন। কিন্তু পাশাপাশি এটাও সত্যি যে, এখন আর এসব কথা বলে তেমন লাভ হবে বলে মনে হয় না।

কারণ স্পষ্ট জনমত নিয়ে ক্ষমতা দখল করতে চলেছে এনডিএ দল। বিজেপি একক ভাবেই বিহারে ৭৪টি বিধানসভা আসন লাভ করেছে। যদিও নীতীশ কুমারের দল ৪৩টি আসনে জিতে রয়েছে তৃতীয় স্থানে রয়েছে।

বিহার ভোটে ভোট গণনা নিয়ে সন্তুষ্ট না হয়ে তেজস্বী যাদব বিহারের একাধিক কেন্দ্রের পুনর্বার ভোট গণনা করার কথা জানিয়েছেন। তাঁর প্রশ্ন,কেন পোস্টাল ব্যালট আগে গণনা করা হল না। তেজস্বী যাদব অভিযোগের সুরে বলেন,পরে গণনা করতে গিয়ে একাধিক আসনের ক্ষেত্রে পোস্টাল ব্যালটকে বাতিল ঘোষণা করেছে কমিশন।