“কোনওদিন ভোটে জেতেননি, বিজেপিই বিধায়ক করেছিল”, মুকুলকে আক্রমণ শুভেন্দুর

কয়েকদিন আগেই বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে নাম লিখিয়েছেন মুকুল রায়। ফলস্বরূপ স্বাভাবিকভাবে বিজেপি নেতৃত্বের মধ্যে সেই নিয়ে মুকুল রায়ের ওপর ক্ষোভ রয়েছে।

অনেক নেতাই ক্ষোভ উগরে দেওয়ার পাশাপাশি এবার মুখ খুললেন মুকুল রায়ের দীর্ঘদিনের সহযোদ্ধা তথা নন্দীগ্রামের বিধায়ক শুভেন্দু অধিকারী। কৃষ্ণনগর উত্তরের বিধায়ক মুকুল রায়কে কটাক্ষ করে বলেন, “মুকুল দা কোনওদিনই ভোটে জেতেননি, বিজেপিই বিধায়ক করেছিল।”

এদিন শুভেন্দু অধিকারী বলেন, “মুকুল রায় কোনওদিনও ভোটে জেতেননি। ২০০১ সালে জগদ্দল থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে সফল না হওয়ায় তারপর আর লড়াইয়ের ময়দানে দেখা যায়নি তাঁকে।

২০ বছর পর বিজেপি ওঁকে টিকিট দিয়েছিল। জিতেওছেন। কৃষ্ণনগর উত্তর আসনে বিজেপির অবস্থা বেশ ভাল। ওখানে কোনও বুথ সভাপতি লড়াই করলেও জয়ী হতেন।” শুভেন্দু অধিকারীর পাশাপাশি এদিন আক্রমণ করেছেন বাবুল সুপ্রিয়।

মুকুল রায় বিজেপি ছাড়ার পর থেকে একাধিক বিজেপি নেতা বেসুরো হয়েছেন। অনেকেই বুঝিয়ে দিয়েছেন যে, তাঁরা আর পদ্ম শিবিরে থাকতে চাইছেন না।

ফলস্বরূপ এবার যে বিজেপিতে বড়োসড়ো ভাঙ্গন দেখা দিতে পারে এই নিয়ে চাপে রয়েছে বিজেপি। এই পরিস্থিতিতে রাজভবনে দিয়েছিলেন শুভেন্দু অধিকারী।

নিজের ফেসবুক পোস্টে শুভেন্দু অধিকারী লেখেন, “বাংলার বর্তমান আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি, বেড়ে চলা হিংসার ঘটনা-সহ রাজ্যের একাধিক গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নিয়ে আলোচনা করতে

বিধায়কদের একটি প্রতিনিধি দল আজ বিকেল ৪ টেয় রাজভবনে মাননীয় রাজ্যপালের সঙ্গে সাক্ষাত করবেন।”বর্তমান পরিস্থিতিতে রাজ্যপালের সঙ্গে শুভেন্দুর সাক্ষাৎ খুবই গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করছে রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা।