“পাতলি কামারিয়া মোরি”, ছাত্রদের সামনে ক্লাসরুমে উদ্দাম নাচলেন শিক্ষিকার, ভাইরাল ভিডিও

শিক্ষক ও ছাত্রের সম্পর্ক একটি সম্মানের। একজন ভাল শিক্ষক তার ছাত্রের জীবন বদলে দিতে পারেন। তিনি কেবল তার জন্য একজন শিক্ষকই নন,

একজন বন্ধু এবং পথপ্রদর্শকও হয়ে ওঠেন। কিন্তু অনেক সময় কিছু শিক্ষক তাদের দায়িত্ব পালন না করে এমন কাজ করেন,

যাতে শিক্ষক ও শিক্ষার্থীর সম্পর্ককে কলঙ্কিত করে। এবার‌ও হল খানিকটা তেমন‌ই। এবং স্যোশাল মিডিয়ার দৌলতে সে খবর চাপাও র‌ইল না।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Alisha (@alisha_catherine_24)


বর্তমানে ইন্টারনেটের সুদিক এবং কুদিক এক‌ই ফ্রেমে। চোখ রাখুন এই খবরে। স্যোশাল মিডিয়ায় বর্তমানে ভীষণ ট্রেন্ডিংয়ে চলছে একটি গান। পাতলি কমরিয়াতে নেচে রিল‌ও হচ্ছে দেদার। তবে আপনি কি মানতে পারবেন শ্রেণীকক্ষে দাঁড়িয়ে শিক্ষিকা ছাত্রদের সামনে নেচে রিল বানাচ্ছে? ছাত্ররাও তাতে অংশগ্রহণ করছে। ভরা ক্লাসের মাঝে এমন ব্যাপার পছন্দ করছেন না নেটজনতারা। যেহেতু বিতর্কিত বিষয় ছড়ায় বেশী সেইজন্য পোস্টটি ভাইরাল‌ও হচ্ছে দ্রুত। যদিও এইদিন ছিল একটি বিশেষ দিন। গড়পড়তা ক্লাস নয়, ক্রিসমাস উপলক্ষ্যে সকল ছাত্র-ছাত্রীদের মাথাতে ছিল সান্টা টুপি, তার ঝলক রয়েছে ভিডিওতেই।

পড়ুয়াদের সাথে নিয়ে কেক‌ও কেটেছিলেন শিক্ষিকা। সেই ছবিও রয়েছে স্যোশাল মিডিয়ার পাতায়। আর তা দেখেই মন নরম হয়ে আসে। হয়ত নিছক আনন্দ করার জন্য‌ই এই রিল। কোনো যৌনতার সুরসুরি বা অশালীন বিষয়বস্তু ছিল না এতে। নাচের ভিডিওটি দেখে নেটিজেনদের একাংশ ভীষণ মজা পেয়েছে। আবার আরেকদল মনে করছে, স্কুলে ক্লাসরুমের মধ্যে শিক্ষিকার এমন ধরনের ভিডিও বানানো উচিৎ হয়নি। এই ধরনের গান কিংবা ভিডিও বানানো শ্রেণীকক্ষে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করতে পারে। প্রসঙ্গত, মহিলাটির নাম আলিশা। ঘটনাচক্রে তাঁর নাম উঠে আসায় দেদার সমস্যাতেও উঠতে হচ্ছে তাঁকে।