স্কুল লাইফে ভালোলাগা তারপর প্রেম, যেকোনো সিনেমার গল্পকেও হার মানাবে সৌরভ ডোনা গাঙ্গুলীর প্রেম কাহিনী

ভারতীয় ক্রিকেটে ‘দাদা’ নামেই পরিচিত সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। জাতীয় দলের প্রাক্তন অধিনায়ক সৌরভ একজন ক্রিকেট প্রশাসক এবং ধারাভাষ্যকারও।

ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন অফ বেঙ্গলের প্রাক্তন সভাপতি সৌরভ বর্তমানে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড বা BCCI-এর ৩৯ তম সভাপতি বাংলার গর্ব।

দাদাগিরি নামক একটি জনপ্রিয় রিয়ালিটি শোয়ের সঞ্চালক‌ও তিনি। সব তো হল, কিন্তু সৌরভ গাঙ্গুলি যে একজন দূর্দান্ত প্রেমিক‌ও তা জানেন কতজন?

সৌরভপত্নী ডোনার সঙ্গে কত ঝড়ঝাপ্টা পেরিয়ে যে বিবাহ হয়েছে তা শুনলে প্রিন্স অফ ক্যালকাটার উপর সম্মান বাড়বে আর‌ও কিছুটা। বেহালার দুটি বনেদি বাড়ি। একটি রায় অন্যটি গাঙ্গুলি। ভীষণ কাছাকাছি, জানলা খুললে অন্যটি দেখা যায়, একজনের বাড়ির শব্দ অন্যজনের কানে আসে। তো এমন‌ই বাড়ির দুই ছেলে মেয়ে সৌরভ ও ডোনা। তখন তাদের নামের আগে ক্রিকেটর, অধিনায়ক, প্রেসিডেন্ট, সঞ্চালক কিংবা নামী ওডিশি নৃত্যশিল্পী এজাতীয় ভারী ভারী উপাধি বসেনি। দুজন কেবল স্কুল পড়ুয়া। এহেন একদিন চোখাচোখি এবং তারপর ছোট্টবেলায় ডুবে যাওয়া প্রেমের আবেশে।

কিন্তু সমস্যা হল দুই বাড়ির কেউ কাউকে পছন্দ করত না। সেইজন্য ডোনাকেও উত্তর দিতে হয়েছিল ভীষণ সতর্কভাবে। টিনএজে একসঙ্গে ম্যান্ডারিন রেস্টুরেন্টে খেতে গিয়েছিলেন তাঁরা। সেটাই ছিল তাঁদের প্রথম ‘ডেট’। নার্ভাস সৌরভের অনেক খাওয়া দেখে হেসে কুটিকুটি ডোনা। আশৈশব প্রেম চলল। কেরিয়ার মুখী হল সৌরভ। ন্যাশনালে যোগ দেওয়ার আগে বুঝলেন ডোনাকে ছাড়া থাকা অসম্ভব। তাই সকলকে লুকিয়ে সারলেন রেজিস্ট্রি। ছ মাস পরে অবশ্য আনুষ্ঠানিক বিবাহ সম্পন্ন হয়, সকলের মত নিয়েই। আজ ডোনা সৌরভের সুখের সংসার। তাঁদের মেয়ে সানাও বড় হয়েছে। সত্যি‌ই সৌরভের প্রেমিকসত্ত্বাকে কুর্নিশ।