একি হল ছোট্ট কৃশবের! প্রথমবার মা হবার পর ছেলেকে খাওয়াতে হিমশিম খাচ্ছেন অভিনেত্রী পূজা

সদ্যই মা হয়েছেন বলিউড টলিউড অভিনেত্রী পূজা বন্দ্যোপাধ্যায়। স’দ্যো’জা’তর ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় শে’য়ারও করেছিলেন অভিনেত্রী।

চলতি বছর একের পর এক খারাপ খবর আসলেও সুখবরের অ’নু’রা’গীদের ভরিয়ে রেখেছিল টলি বলি সেলেবরা। মাত্র কয়েক দিন হয়েছে

মা হয়েছেন অভিনেত্রী পূজা বন্দ্যোপাধ্যায়। পুজোর আগেই এক ফু’টফুটে পুত্র সন্তানের জ”ন্ম দিয়েছিলেন অভিনেত্রী পূজা।

তিনি মায়ের কর্তব্য পালনে ব্যস্ত। প্রে’গ’নে’ন্সির সময়টা দারুণ উপভোগ করছেন পূজা। বে-বি বা-ম্প-এর নানা ছবি পো-‘স্ট করেছেন সোশ্যাল মিডিয়ায়।

তারপর মিষ্টি এক পুত্র স’ন্তা’নের জ”ন্ম দেন তিনি। পূজার ছোট্ট ছেলে কৃষভ-এর অ’ন্নপ্রা’শন হল নিয়ম নিষ্ঠা মেনে। ধুতি পাঞ্জাবি পরে,

চন্দনের টিপ দিয়ে সেজে উঠেছে কৃষভ। ২০২০-অক্টোবরে পূজা ও কুণাল বর্মার পরিবারে আসে তাঁদের স’ন্তান। তারকা দ’ম্প’তি ছেলের নাম রাখেন কৃশব।

অভিনেত্রী ছেলেকে বড় করার জন্য কিছুদিনের জন্য অভি’নয় থেকে বিরতি নিয়েছেন কারণ ছেলের প্রতিটি মুহূর্ত তাড়িয়ে তাড়িয়ে উপভোগ করছেন।

কিছুদিন আগে অভিনেত্রীর ছেলে ৫ মাসে পা দেন আর সেদিন ছিল শিবরাত্রি। আর এই শিবরাত্রিতে ছোট্ট কৃশিব নিজের হাতে পু”জো করলেন শিব ঠাকুরের।

কৃশিব দেখতে দেখতে এখন অনেকটাই বড় হয়ে গিয়েছে। সম্প্রতি কিছুদিন আগে ছিল কৃশিবের প্রথম মু’খে ভাতের অনুষ্ঠান।

অবাঙালি মতে না বাঙালি মতে ধূতি, পাঞ্জাবি, মাথায় টোপর আর গ’লায় মালা আর ফুলের সাজে হাজির হয় নিজের অন্নপ্রা’শন অনুষ্ঠানে।

ক-রো-না’র জন্য ঘরোয়া ভাবে মুখে ভাতের অনু’ষ্ঠানটি হয়৷ ছোট্ট কৃশিব বাঙালি লু’কে বাবার কোলে বসে কৃশিবের মিষ্টি হাসি ছিল অ’ন্নপ্রা’শনের সেরা মুহূর্ত।

অ’ন্নপ্রা’শন হয়ে যাওয়া মানে প্রতিটি বা-চ্চা দু’ধের সাথে অল্প অল্প খাওয়ার এরপর থেকে খেতে পারে। কৃশিব ও এর থেকে ব্য’তিক্রম নন।

এবার ছোট্ট কৃশিব মায়ের হাতে অল্প অল্প করে খেতে পারে। কিন্তু কৃশিব দু’ষ্টু’মিতে মা’ত’লো। কৃশিবকে খাওয়াতে গিয়ে কোনো কারণে সব খাবার মু’খে লেগে যায়।

আর সেই খাবার ছোটু দু’ষ্টুমি করে পুরো গোপাল ঠাকুরের মতো মু’খে মাখিয়ে নেয়। এরপর খিলখিল করে মায়ের দিকে তাকিয়ে হাসে।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Puja Banerjee (@banerjeepuja)

আর সেই মুহূর্ত লে’ন্সব’ন্দী করে সোশ্যাল মিডিয়াতে শে’য়া’র করলেন। তারপর ক্য’প’শানে লিখলেন, ‘কবে যে কৃশিব নিজের হাতে খেতে শিখবে