“রামকৃষ্ণ সবচেয়ে বড় অশিক্ষিত, রবীন্দ্রনাথ অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত পড়েছেন”, বিতর্কিত মন্তব্য দিলীপের

বিতর্কের অপর নাম বিজেপির সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি দিলীপ ঘোষ। বিতর্ক যেন তাঁর পিছু ছাড়তে নারাজ তথাগত রায়ের একের পর এক আক্রমণের পাল্টা জবাব দিতে গিয়ে রামকৃষ্ণদেব ও রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর প্রসঙ্গে নজিরবিহীন মন্তব্য করে বসলেন দিলীপ ঘোষ।

“রামকৃষ্ণ তো সবচেয়ে বড় অশিক্ষিত”, এবার এমনই মন্তব্য করে বসলেন মেদিনীপুরের সাংসদ। বিজেপি নেতা তথাগত রায় বেশ কয়েকদিন ধরে দলের বিরুদ্ধে নানান ধরনের বিতর্কিত মন্তব্য করে চলেছেন। রাজ্য বিজেপির নেতাদের কটাক্ষ করতে ছাড়েননি তিনি।

কথা বোঝোনা এর মন্তব্যের পাল্টা জবাব দিয়েছেন বিজেপির সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি দিলীপ ঘোষ। আক্রমণের পাল্টা আক্রমণ চলতেই থাকছে বিজেপির অন্দরে। এসবের মাঝে দিলীপ ঘোষকে অশিক্ষিত বলে দাবি করেছিলেন তথাগত রায়। দিল্লি থেকে রবিবার সেই মন্তব্যের জবাব দিলেন দিলীপ ঘোষ।

অশিক্ষিত বিষয়ে মন্তব্য করতে গিয়ে বিজেপির সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেছেন, “কে কটা বই পড়েছে, কটা ডিগ্রি আছে, এটা এ দেশে কেউ ভাবেনি। বইয়ের হিসেবে দেখলে তো সবচেয়ে বড় অশিক্ষিত রামকৃষ্ণদেব। অথচ সবার বাড়িতে তাঁর বই রয়েছে।” রবীন্দ্রনাথ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “রবীন্দ্রনাথও খুব বেশিদূর লেখাপড়া করেননি, অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত পড়েছেন মাত্র।” এই ধরনের মন্তব্য করে আবারো বিতর্কে জড়িয়েছেন দিলীপ ঘোষ।

মেদিনীপুরের বিজেপির সাংসদের মন্তব্যের তীব্র নিন্দায় সরব হয়েছে ঘাসফুল শিবির। কটাক্ষের সুরে অনেকেই বলেছেন, সত্যিই দিলীপ ঘোষ অশিক্ষিত। সেই কারণেই রাজ্য সভাপতির পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে তাঁকে। যদিও এসব মন্তব্যে খুব একটা গুরুত্ব দিতে নারাজ দিলীপ ঘোষ। আক্রমণ পাল্টা আক্রমণের জেরে রীতিমতো তলানিতে গিয়ে ঠেকেছে তথাগত-দিলীপের সম্পর্ক। তথাগত রায়কে দল ছেড়ে দেবার প্রস্তাব দিয়েছিলেন দিলীপ।