পদ্মার ইলিশ পাঠিয়েছে বাংলাদেশ, কিন্তু পিয়াঁজ দিচ্ছে না ভারত, তীব্র অভিমান প্রকাশ বাংলাদেশের

কথায় আছে মাছে ভাতে বাঙালি। আর তাও যদি হয় ইলিশ মাছ আর সেই ইলিশ যদি হয় পদ্মার তাহলে তো কোন কথাই নেই। প্রতিবছরই বাংলাদেশ থেকে বিপুল সংখ্যক ইলিশ আমদানি হয় ভারতে। ভারতের বাজারে ইলিশের চাহিদা আকাশ ছোঁয়া।

তাই প্রতিবছরের ন্যায় এই বছরও বাংলাদেশ ইলিশ পাঠিয়েছে ভারতে। কিন্তু ভারত পেঁয়াজ রফতানি বন্ধ করে দিয়েছে বাংলাদেশ যার ফলে অভিমান হয়েছে ঢাকার। এমনকি ভারতের বি’রু’দ্ধে অলিখিত চুক্তি ভঙ্গের অভিযোগ তুলেছে শেখ হাসিনার দেশ।

বর্তমানে বাংলাদেশে পেঁয়াজ রপ্তানিতে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে ভারত।সোমবার ভারতের ডিরেক্টর জেনারেল অফ ফরেন ট্রেডের তরফে একটি নির্দেশিকা জারি করে পেঁয়াজ রফতানি ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। পরবর্তী কোনো নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত নিষেধাজ্ঞা জারি থাকবে বলে জানা যাচ্ছে আর তাতেই ক্ষুব্দ প্রতিবেশী দেশ বাংলাদেশ।

ভারত পেঁয়াজ রফতানি বন্ধ করলেও ভারতে ইলিশ রপ্তানি আটকাইনি বাংলাদেশ। তারা স্বভাবতই সোমবার গভীর রাতে বেশ কয়েকটি ট্রাকভর্তি ইলিশ পশ্চিমবঙ্গে পাঠিয়েছে।প্রতিবেশী দেশগুলির মধ্যে অত্যাবশ্যক পণ্য আমদানি এবং রপ্তানিকারক চুক্তির মাধ্যমে। ২০১১ সালে বাংলাদেশে সিদ্ধান্ত নিয়েছিল তারা ইলিশ রপ্তানি বন্ধ করবেন কিন্তু তা সত্বেও তারা বন্ধ করেননি ইলিশ রপ্তানি।

পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ করে দেওয়ায় বাংলাদেশের বাজারে পেঁয়াজের দাম আকাশছোঁয়া। পেঁয়াজের দাম বাড়তে বাড়তে সাধারণ মানুষের হাতের নাগালের বাইরে গিয়ে দাঁড়িয়েছে।

বাংলাদেশের বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি জানান, “এধরনের কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে একবার প্রতিবেশী রাষ্ট্রগুলিকে জানানো উচিত ছিল দিল্লির”। পেঁয়াজ রপ্তানির ওপর নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়ার আবেদনও জানিয়েছেন তিনি। এখন দিল্লির সিদ্ধান্ত কি হয় এটাই দেখার পালা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here