বাবুলকে “বিশ্বাসঘাতক” তকমা তথাগতর, “ভাষা জ্ঞান” শেখালেন বাবুল সুপ্রিয়

গেরুয়া শিবির ছেড়ে ঘাসফুল শিবিরে ভিড়েছেন বাবুল সুপ্রিয়। দলবদলের পরেই শুরু হয়ে গিয়েছে বাবুল সুপ্রিয়-তথাগত রায়ের টুইট যুদ্ধ। প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়কে “বিশ্বাসঘাতক” আখ্যা দিয়েছেন বর্ষীয়ান বিজেপি নেতা তথাগত রায়। তাঁর টুইটের ভাষা নিয়ে পাল্টা আক্রমন শানালেন আসানসোলের সাংসদ বাবুল সুপ্রিয়।

টেনে আনলেন বিজেপির রাজ্যসভার সাংসদ স্বপন দাশগুপ্তর মন্তব্য। সব জল্পনার অবসান ঘটিয়ে শনিবার দুপুরে তৃণমূল কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাত ধরে ঘাসফুল শিবিরে যোগদান করেছেন বাবুল সুপ্রিয়।

তারপর থেকে বিভিন্ন মহল থেকে আক্রমণের শিকার হয়েছেন বাবুল। কেউ তাঁকে বলেছেন, স্বার্থপূরণ করতেই রাজনীতি করেছেন। কেউ তাঁকে “বিশ্বাসঘাতক” বলে আখ্যা দিয়েছেন।

আসানসোলের সাংসদ বাবুল সুপ্রিয় আগে থেকে জানিয়ে দিয়েছিলেন, এই সমস্ত নেতিবাচক মন্তব্য তার উপরে কোন রকম প্রভাব ফেলতে পারবে না। ঠিক তার কিছুক্ষণের মধ্যেই তিনি তথাগত রায়ের সঙ্গে জড়ালেন টুইট যুদ্ধে।

শনিবার সন্ধ্যায় তথাগত রায় টুইট করে লেখেন, “পশ্চিমবঙ্গ বিজেপিকে বিপদে ফেলেছে বিশ্বাসঘাতকরা। বেচারা বাবুল সুপ্রিয়র উপর রাগ করে আর কী হবে? ও তো প্রথম বিশ্বাসঘাতক নয়! শেষও নয়। কিন্তু মতাদর্শ চিরন্তন।

ব্যক্তিপূজা কখনো মতাদর্শকে হারাতে পারবে না। বিপদ কেটে যাবে।” বিশেষজ্ঞ মহলের দাবি, বাবুল সুপ্রিয়কে তথাগত রায় “বিশ্বাসঘাতক” বলে তোপ দেগেছেন। পাল্টা দিলেন বাবুল সুপ্রিয়।

স্বপন দাস গুপ্তের মন্তব্য টেনে আসানসোলের সাংসদ বাবুল সুপ্রিয় টুইট করে লেখেন, “আপনি কী লিখেছেন এবং স্বপন দাশগুপ্ত কী লিখেছেন, কোন ভাষায় লিখেছেন, সেটা দেখুন। স্বপনবাবু তাঁর আভিজাত্য বুঝিয়ে দিয়েছেন। কিন্তু আপনার বিষয়টি দুঃখজনক।”

বাবুল আরও লেখেন, “টুইটের ভাষা এবং বিষয় আপনার বয়সের সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ হওয়া উচিত। রাজ্যপালের মতো গুরুত্বপূর্ণ পদে ছিলেন, তা ভেবেই টুইট করা উচিত ছিল। আপনাকে আমি জানি বলেই একথা বলছি।”

স্বপন দাশগুপ্ত বাবুলকে বিজেপির সম্পদ হিসেবে উল্লেখ করে তাঁর দলবদল দুঃখজনক বলে মন্তব্য করেছেন। একই সঙ্গে তিনি লেখেন, “রাজনীতিতে পুনঃপ্রবেশের জন্য বিজেপি ছাড়ার সিদ্ধান্তে দুঃখ পেলাম।

রাজনীতিতে থাকতে হলে ধৈর্য রাখতে হয়। কিন্তু বাবুল পারলেন না। তাঁর বড্ড তাড়া ছিল। কিন্তু এতে তাঁর নিজের ভাবমূর্তিই নষ্ট হল।” সব মিলিয়ে দেখতে গেলে বাবুল সুপ্রিয়র দলবদল নিয়ে উত্তপ্ত বঙ্গ রাজনীতি।