শুভেন্দু নামক স্তম্ভ ভেঙে গিয়েছে, মমতার তৃণমূল-অট্টলিকা আর টিকবে না: অধীর

জল্পনার অবসান শেষে মন্ত্রিত্ব ছাড়লেন শুভেন্দু অধিকারী। মুখ্যমন্ত্রী ও রাজ্যপালকে চিঠি দিয়ে মন্ত্রিত্ব ছাড়লেন তিনি। দলের সঙ্গে কয়েকদিন ধরেই দূরত্ব তৈরি হচ্ছিল শুভেন্দু অধিকারীর।

গতকাল এইচআরবিসি-র চেয়ারম্যান পদ ছাড়েন তিনি। আর আজ সকালে সরকারি নিরাপত্তা ছাড়েন। কিছুক্ষণ পরই মন্ত্রিত্ব পদ ছাড়েন। এতেই তৃণমূলের ভাঙন রেখা দেখতে শুরু করলেন কংগ্রেসের পশ্চিমবঙ্গের প্রদেশ সভাপতি অধীর রঞ্জন চৌধুরী।

এই প্রেক্ষিতে তৃণমূলকে খোঁচা দিতেও ছাড়েননি তিনি। আর শুভেন্দু অধিকারীর এই পদক্ষেপ যে তৃণমূল নেতৃত্বের ভিত বেশ নড়বড়ে করে দিয়ে গেল তা বলার অপেক্ষা রাখেনা। এই ঘটনা তৃণমূলের জন্য অশনি সংকেত বলে দাবি করলেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর রঞ্জন চৌধুরী।

এদিন শুভেন্দুর পদত্যাগ প্রসঙ্গে অধীর চৌধুরীকে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, তৃণমূল দলটার লোপ পাওয়ার শুরু হয়ে গিয়েছে। তৃণমূল আগামী দিনে ভেঙে টুকরো-টুকরো হয়ে যাবে। এগুলো তার শুরু।

অতএব এখনও যাঁরা তৃণমূল করছেন, তাঁরা ভেবে দেখবেন। কারণ, তৃণমূলের অস্তিত্ব লোপ পাওয়ার প্রক্রিয়া এই মুহূর্ত থেকে শুরু হয়ে গেল।

অধীর চৌধুরী আরও বলেন, ‘তৃণমূলের যে কজন বড় বড় মাথা রয়েছেন, তাঁদের মধ্যে অন্যতম শুভেন্দু অধিকারী ও তাঁর পরিবার।

তৃণমূলের সব বড় বড় স্তম্ভ এরা। স্তম্ভ যখন ভাঙা শুরু করেছে তখন অট্টালিকা বেশিদিন থাকতে পারবে না। তৃণমূল নামক মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অট্টালিকা ধীরে ধীরে ভাঙনের পথে এগিয়ে চলেছে। আগামীদিনে তা ভস্মীভূত হবে।’